রবিবার , ২৮ মে ২০২৩ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
TableTalkUK
  1. ক্রাইম সিন
  2. খেলাধুলা
  3. জেলার খবর
  4. তথ্য-প্রযুক্তি
  5. প্রবাসের কথা
  6. বাংলাদেশ
  7. ব্যাবসা-বাণিজ্য
  8. ভিডিও সংলাপ
  9. মিডিয়া
  10. শিক্ষাঙ্গন
  11. সকল সংবাদ

শিক্ষকদের আন্দোলনে রুয়েট উপাচার্যের পদত্যাগ

প্রতিবেদক
ukadmin
মে ২৮, ২০২৩ ১০:৪১ অপরাহ্ণ

শিক্ষকদের আন্দোলনে মুখে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন পদত্যাগ করেছেন।

রোববার রাত সোয়া ৯টার দিকে ড. সাজ্জাদ নিজেই পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ড. সাজ্জাদ বলেন, শিক্ষকদের আন্দোলন ও দাবি মেনে আমি পদত্যাগ করেছি। এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে পারছি না।

চলতি দায়িত্বে থাকা উপাচার্যের পদত্যাগ, নিয়মিত উপাচার্য নিয়োগ এবং পদোন্নতির দাবিতে রুয়েটের প্রায় ৮০ জন শিক্ষক উপাচার্যের কক্ষে অবস্থান নেন। রোববার বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত তারা সেখানে অবস্থান করেন। পরে শিক্ষকদের দাবি মেনে উপাচার্য পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নেন।

আন্দোলনকারী শিক্ষকরা জানান, গত বছরের জুলাই থেকে চলতি দায়িত্বের উপাচার্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও নতুন উপাচার্য নিয়োগ না হওয়ায় তারা পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। দ্রুত চলতি দায়িত্বের উপাচার্যের পদত্যাগ এবং নিয়মিত উপাচার্য নিয়োগ দিয়ে সমস্যার সমাধানের দাবি তাদের। দাবি না মানা হলে অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণাও দেন তারা।

রুয়েটের মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক সারাফাত হোসেন অভি বলেন, প্রায় দেড় বছর ধরে যোগ্যতাসম্পন্ন হয়েও অনেক শিক্ষকের পদোন্নতি আটকে আছে। চলতি দায়িত্বে থাকা উপাচার্যকে অসংখ্যবার বলার পরও তিনি কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, চলতি দায়িত্বের উপাচার্যের পদোন্নতি দেওয়ার ক্ষমতা নেই। তাই নতুন উপাচার্য নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত শিক্ষকদের পদোন্নতি দেওয়া সম্ভব নয়।

প্রসঙ্গত, রুয়েটের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলামের মেয়াদ শেষ হয় গত বছরের ৩০ জুলাই। একদিন পরই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে রুয়েটের ফলিত বিজ্ঞান ও মানবিক অনুষদের ডিন ড. সাজ্জাদ হোসেনকে দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য করা হয়েছিল। এরপর থেকে তিনি রুয়েটের রুটিন উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

সর্বশেষ - বাংলাদেশ